• ঢাকা

নিজস্ব প্রতিবেদক


Nov 19, 2022
18:21:10

সব বাধা পার করে গণসমাবেশকে পরিণত করেছে জনসমুদ্রে

বিএনপির সিলেট বিভাগীয় মহাসমাবেশের ঠিক আগের দিনে বিভাগের তিন জেলায় বাস মালিক সমিতির ডাকে হবিগঞ্জ, মৌলভীবাজার ও সুনামগঞ্জ জেলায় স্থানীয় পরিবহন ধর্মঘট চলছে। গণপরিবহন বন্ধ থাকলেও বিকল্প উপায়ে আগেরদিনই সমাবেশে যোগ দিছে দলটির নেতাকর্মীরা। এরমধ্যে কেউ হেঁটে, কেউ অটোরিকশা আবার অনেকেই মোটরসাইকেলে করে সিলেটে মহাসমাবেশে যোগ দিছেন সাধারণ সমর্থকরাও।

প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য দেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। প্রধান বক্তা হিসেবে স্থায়ী কমিটির সদস্য মির্জা আব্বাস, বিশেষ অতিথি আমির খসরু মাহমুদ চৌধুরী ও সেলিমা রহমান বক্তৃতা দেন । সমাবেশে সভাপতিত্ব করছেন সিলেট জেলা বিএনপির সভাপতি আবদুল কাইয়ুম চৌধুরী।

বিএনপির সাধারণ নেতাকর্মীদেরও দেখা যায় অনেক কষ্টের মাঝে সমাবেশে যোগ দিছেন। এমনও হয়ছে ৮০ টাকা রিকশা ভাড়া ২০০ টাকা দিতে হয়ছে। সামাবেশে আসার পথে কয়েকটা পুলিশের বাধা ছিল বলে শুনা যায়।  এর মাঝে সব থেকে ক্ষতিগস্ত হয় সাধারণ জনগণ।


বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বক্তব্যে বলেছেন, সরকার নতুন করে খেলা শুরু করেছে। মামলা মামলা খেলা, গায়েবি মামলা। কোনো কিছু ঘটে নাই, হঠাৎ বলে দিল, এখানে নাকি নাশকতা হয়েছে। এই নাশকতার মামলার আসামি ১১৪, ২১৪, ৪০০, ৪৫০। জানে কেউ, কিছু হয়েছে কি না? এভাবে ১৪ বছর ধরে তারা এ দেশের মানুষের ওপরে অত্যাচার-নিপীড়নের স্ট্রিম রোলার চালিয়ে যাচ্ছে।

তিনি আরও বলেন, আমাদের সাধারণ মানুষ-খেটে খাওয়া মানুষ, কৃষক-শ্রমিক, মেহনতি জনতা, যে ভ্যান ঠেলে, ঠেলাগাড়ি চালায়, নৌকায় বইঠা বায়, কৃষিতে ফসল ফলায় কিন্তু তারা এখন শান্তিতে নাই। গতকালও তেলের দাম আবার বেড়েছে, চিনির দাম বেড়েছে, শাক-সবজি-লবণ-ডিম সবকিছুর দাম বেড়েছে। কিন্তু আমার কৃষক ভাই বোন সেই ন্যায্য মুল্য পাচ্ছে না। সেই কৃষক ভাই, কৃষক মা তার ছেলেকে একটা ডিমও দিতে পারে না।


সিলেট বিএনপির সাধারণ সম্পাদক নুরুল ইসলাম নুরুল বলেছেন, পুলিশ ছাত্রলীগের ভূমিকা পালন করছে। প্রতিটি পয়েন্টে পুলিশ বাধা দিচ্ছে বিএনপি নেতাকর্মীরা, নগরীর সব রাস্তা বন্ধ করে দিয়েছে বলে তিনি দাবি করেন।

সিলেটের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোহাম্মদ আবু সাঈদ জানান, আইনশৃঙ্খলা রক্ষায় তারা সতর্ক অবস্থানে রয়েছেন। কোথাও কোনো বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি হলে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলেও জানান তিনি। বিএনপি ২৭ সেপ্টেম্বর ১০টি বিভাগীয় ও বড় শহরে ধারাবাহিক জনসভার ঘোষণা দেয়।

আগামী ১০ ডিসেম্বর ঢাকায় গণসমাবেশের মধ্য দিয়ে বিভাগীয় সমাবেশ শেষ করবে দলটি।